মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

১। ০২ (দুই) কপি নতুন (এমআরপি) ফরম নিকটস্থ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস/বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিস হতে অথবা অনলাইনে (WWW.dip.gov.bd) সংগ্রহ করম্নন। বাংলাদেশ পাসপোর্ট  রম্নলস  অনুসারে  যাদের  ÿÿত্রে পুলিশ তদমত্ম বাধ্যতামূলক নয় তারা দুইটি ফরমের পরিবর্তে একটি ফরমে আবেদন করতে পারবেন।

২। আবেদনপত্র সঠিক এবং সম্পূর্ণভাবে পূরণ করম্নন।

৩। জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন অনুসরণ করে আবেদনপত্র পূরণ করম্নন।

৪। প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য প্রতিটি ফরমের নির্ধারিত স্থানে একটি পাসপোর্ট সাইজের (৫.৫ সেঃমিঃX৪.৫সেঃমিঃ) ছবি আঠা দিয়ে সংযুক্ত করম্নন।

৫। আবেদনপত্রের উপর ছবি সংযুক্ত করার পর ছবি সত্যায়ন করম্নন। এমন ভাবে সত্যায়িত করম্নন যাতে কিছু অংশ ছবির উপর এবং কিছু অংশ ফরমের উপর পরে। যিনি ছবি সত্যায়ন করবেন তিনি ফরমের শেষে প্রত্যায়ন অংশ পূরণ করবেন।

৬। আবেদন পত্রের সাথে জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা ডিজিটাল জন্ম সনদের সত্যায়িত ফটোকপি সংযুক্ত করম্নন এবং মূল কপি সঙ্গে রাখুন।

৭। সোনালী ব্যাংকের অনুমোদিত শাখায় (নেত্রকোনা করপোরেট শাখা) নিধারিত ফি জমা করে প্রাপ্ত রশিদ ফরমের উপর আঠা দিয়ে সংয়ুক্ত করম্নন।

৮। আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস নেত্রকোনায় আবেদন ফরমটি জমা দেওয়ার জন্য আসুন।

৯।আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস সমূহে আবেদনপত্র গ্রহণের পর আবেদনকারীর তথ্য কম্পিউটারে লিপিবদ্ধ করা হয় (PRE-ENROLMENT) এবং একটি রশিদ প্রদান করা হয় সেখানে আপনার তথ্য সঠিক আছে কিনা যাচাই করে নিবেন। তথ্যে কোন প্রকার ভূল থাকলে সংশিস্নষ্ঠ কম্পিউটার অপারেটরকে অবহিত করম্নন তারপর ছবি,আঙ্গুলের ছাপ এবং স্বাÿর নেওয়া হবে যাকে বলা হয় নিবন্ধন(BIO-ENROLMENT)। নিবন্ধনের পর ডেলিভারী রশিদ দেওয়া হবে, যার উপর পাসপোর্ট প্রদানের সম্ভাব্য তারিখ দেওয়া থাকবে।

১০। ১৫ বছরের কম বয়সের আবেদনকারীর ÿÿত্রে পিতা- মাতার একটি করে রঙ্গিন ছবি উভয় ফরমে আঠা দিয়ে সংযুক্ত করে সত্যায়িত করম্নন।

১১। ফরম পূরণ করার সময় যদি কোন জটিলতায় পরেন তাহলে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের কর্মকতা/কর্মচারীর সাহায্য নিতে পারেন।

১২। জরম্নরী মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট প্রাপ্তির ÿÿত্রে ০৭ (সাত) কর্ম দিবসের মধ্যে (পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেÿÿ) ভ্যাটসহ ৬,৯০০/=(ছয় হাজার নয় শত) টাকা ও সাধারন ২১(একুশ) কর্ম দিবসের মধ্যে (পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেÿÿ) ভ্যাটসহ ৩,৪৫০/=(তিন হাজার চার শত পঞ্চাশ) টাকা ফি প্রদান করতে হবে।

১৩। প্রযোজ্য ÿÿত্রে প্রাসঙ্গিক  জিও (GO), এনওসি (NOC) দাখিল করতে হবে।

১৪। আপনার বর্তমান পাসপোর্টটি হারিয়ে গেলে, মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে, মেয়াদ আছে কিন্তু পাতা শেষ হয়েছে অথবা ব্যবহারের অনুপযোগী হলে মেশিন রিডাবল পাসপোটের্র জন্য আবেদন করতে হবে। নতুন এমআরপি পাসপোর্টে পুরাতন পাসপোর্টের নম্বর উলেস্নখ থাকবে।

১৫। এমআরপি সংশিস্নষ্ঠ যে কোন তথ্যের জন্য পাসপোর্ট অফিসের নির্ধারিত তথ্য কেন্দ্রে যোগাযোগ করম্নণ।

১৬। পাসপোর্ট গুরম্নত্বপূর্ণ দলিল সুতরাং সঠিক তথ্য দিয়ে এবং সার্বিক নিয়ম মেনে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করম্নণ।

১৭ এমআরপি পাসপোর্টের কোন পরিবর্তন করতে চাইলে ম্যাজষ্ট্রেট এফিডেভিট  আবেদন পত্রের সাথে দাখিল করতে হবে।

১৮। একজন ব্যক্তি একটি মাত্র এমআরপি পাসপোর্ট গ্রহণ করতে পারবে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter